You are currently viewing খাবারের তালিকায় কেন রাখবেন লইট্টা শুঁটকি?
লইট্টা শুঁটকির উপকারিতা

খাবারের তালিকায় কেন রাখবেন লইট্টা শুঁটকি?

সঠিক বাতাসের ফ্লো, আর্দ্রতা ও তাপমাত্রা যুক্ত স্থানে অনুকুল পরিবেশে শুঁটকি প্রস্তুত করা হয় বলে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন ডি থাকে। যা দাঁত, হাড় ও নখের গঠন মজবুত করতে সাহায্য করে।

লইট্টা শুঁটকিতে প্রচুর পরিমাণে আয়রন রয়েছে যা রক্তের হিমোগ্লোবিন তৈরিতে করতে সাহায্য করে। তাই যাদের রক্তাল্পতার সমস্যা আছে, তাদের জন্য ইট্যা শুঁটকি দারুণ কার্যকরি। লইট্টা মাছের প্রোটিন শরীরের হরমোন, এনজাইম এবং অন্যান্য কেমিক্যালের ভারসাম্য বজায় রাখে।লইট্টা মাছে অতি উপকারী ওমেগা থ্রি ফ্যাটি এসিড থাকে যা মানুষের শরীরের রক্তনালী পরিষ্কার রেখে হার্ট স্ট্রোকের ঝুকি কমায়। 

লইট্টা শুঁটকির উপকারিতা

লইট্টা শুঁটকির উপকারিতা
  • লইট্টা মাছের তেল দারুন এক ব্যথানাষক ঔষধ হিসেবে কাজ করে এবং এই মাছের শুটকিতে থাকা ক্যালসিয়াম উচ্চ রক্তচাপ (ব্লাড প্রেসার) কমায়।
  • তাজা ও শুঁটকিউভয় মাছেই পর্যাপ্ত পরিমাণ প্রোটিন, ম্যাগনেসিয়াম, ক্যালসিয়াম ফসফরাস ইত্যাদি সহ অনেক প্রয়োজনীয় উপাদান রয়েছে। 
  • অস্টিওপোরোসিস ও আর্থারাইটিস ইত্যাদি আক্রান্ত রোগীর জন্য এই মাছ খুবই উপকারি। এছাড়াও কোলন ক্যান্সারের মতো রোগের ঝুঁকি কমায়। 
  • লইট্টা মাছে থাকা ক্যালসিয়াম নারীদের পিরিয়ড শুরুর আগের সময়ে মুডজনিত মানসিক সমস্যা কমায়।
  • ওমেগা-৩-ফ্যাটি অ্যাসিড হার্টের সুস্বাস্থ্য যেমন অতিরিক্ত রক্ত জমাট বাঁধা প্রতিরোধ, রক্তে ট্রাইগ্লিসারাইডের লেভেল কমানো, রক্ত-সঞ্চালন বাড়ানো ইত্যাদি কাজ করে থাকে। যা পুরোটাই লইট্টা মাছে থেকে পাওয়া যায়।
  • থাইরয়েড রোগীর এই মাছ খাওয়া উচিত কারন এতে  প্রচুর আয়োডিন রয়েছে।মাংসপেশীর স্বাভাবিক সংকোচন-প্রসারণের জন্য সাহায্য করে।
  • লইট্টা মাছে প্রচুর পরিমানে প্রোটিন রয়েছে। যখন এই মাছকে বিশেষ পদ্ধতিতে শুকিয়ে শুঁটকি করা হয় তখন প্রোটিনের পরিমান আরো বেড়ে যায়। যা আমাদের শরীরের টিস্যু গঠনে অনেক বড় ভুমিকা রাখে। তবে এমন কিছু রোগ আছে যে রোগ গুলোর ক্ষেত্রে নির্দিষ্ট পরিমাণ প্রোটিন শরীরের জন্য ভালো, সেক্ষেত্রে পরিমিত পরিমানে লইট্যা শুঁটকিবা মাছ খাওয়া ভালো। 
  • লইট্টা মাছ স্মৃতিশক্তি হ্রাস, চুল পড়ে যাওয়া, ক্লান্তি দুর্বলতা মাথাব্যথা, রুক্ষ চুলের সমস্যা, চোখের নিচে কালচে ভাব, দূর করতে সাহায্য করে।

এছাড়াও এটি পেশির শক্তিবৃদ্ধি, শরীরের তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রণ, পরিপাকে সহায়তা, ব্রেইনের সক্ষমতা বৃদ্ধি, শক্তিশালী রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা, অনিদ্রা কমানো, দৃষ্টিশক্তি বৃদ্ধি, ত্বক ও ঠোঁটের সুস্বাস্থ্যসহ অসংখ্য স্বাস্থ্য উপকার করে থাকে।

নানান উপকারিতা থাকা সত্তেও আমরা চাইলেই এই আসল লইট্টা শুঁটকি পাই না। এই সমস্যার সমাধান হিসেবে আপনি বিন্নিফুডে পাচ্ছেন প্রিমিয়াম লইট্টা শুঁটকির নিশ্চয়তা।

Leave a Reply