You are currently viewing রসুনের আচার রেসিপি, উপকারিতা এবং সংরক্ষণ পদ্ধতি
রসুনের আচার রেসিপি, উপকারিতা এবং সংরক্ষণ পদ্ধতি

রসুনের আচার রেসিপি, উপকারিতা এবং সংরক্ষণ পদ্ধতি

“আচার” আমাদের সকলের কাছেই খুব পরিচিত এবং লোভনীয় খাবারের নাম। ইতিহাসবিদদের মতে, পৃথিবীর প্রাচীনতম খাবার ‘ আচার’ । ২৮০০ খ্রিষ্টপূর্বের প্রাচীন মেসোপটেমিয়ান সভ্যতার সময় থেকে মানুষ আচার খাওয়া শুরু করেন ,এবং সেই থেকে কালের বিবর্তনে আমাদের খাবারের তালিকায় চলে এসেছে হরেক রকমের আচার।প্রত্যেকটি আচারই তাদের নিজস্ব স্বাদের বহিপ্রকাশ করে। ঠিক তেমনি একটি  অনন্য স্বাদের আচার হলো “ রসুনের আচার”। 

অসাধারন টেস্ট এবং পুষ্টিসম্পূর্ন এই রসুনের আচার শুধু আপনার খাবারের টেস্ট কেই বাড়াবে না, বরং সেই সাথে আপনার শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাকে বাড়াবে।তাই সুস্থ থাকতে এবং সেই সাথে আপনার খাবারের টেস্টে নতুনত্ব আনতে অর্ডার করতে পারেন ঔষধিগুনে ভরপুর এই রসুনের আচার। খিচুরি হোক বা গরম ভাত,যেকোনো  খাবারের টেস্টে এক  অনন্য মাত্রা যোগ করবে এই রসুনের আচার। 

এমন আস্ত রসুনের আচার পছন্দ করবে না এমন মানুষ বেশ কমই আছেন। এইতো কয়েক বছর আগেও বাংলার ঘরে ঘরে তৈরি হতো এই আচার। কিন্তু বর্তমানে কর্মব্যস্ততার কারনে এখন অনেকেই এই আচার তৈরি করতে পারেন না। ফলে ইচ্ছে থাকা স্বর্তেও আচারের স্বাদ আস্বাদনের সুযোগ পান না অনেকেই। তাদের কথা মাথায় রেখেই একটি ঘরোয়া আচারের স্বাদ আপনাদের কাছে পৌছে দিতেই আমাদের এই আয়োজন। 

রসুন আচারের উপাদান

রসুন আচারের উপাদান

আমাদের এই রসুনের আচার সম্পুর্ন কেমিক্যাল মুক্ত। বাছাইকৃত রসুন দিয়ে বানানো হয় এই অনন্য স্বাদের আস্ত/ গোটা রসুনের  আচার। আচারে টক, ঝাল, মিষ্টি ফ্লেভারের জন্য ব্যাবহার করা হয় তেতুল, শুকনো মরিচ, চিনি সহ আর হরেক রকমের মশলা ,যা আচারের টেস্ট কে বাড়িয়ে দেয় আরো বহুগুন।

কেন খাবেন এই আচার?

রসুনের উপকারিতা সম্পর্কে বলে শেষ করা বেশ মুশকিল বটে! প্রায় সময়ই ডাক্তার রা  প্রতিদিন ২ কোয়া করে রসুন খাওয়ার পরামর্শ দিয়ে থাকেন। চলুন জেনে  নেওয়া যাক রসুনের কিছু বিশেষ উপকারিতা 

  • হার্টের যেকোনো সমস্যা সমাধানের জন্য এটি খুবই উপকারী।
  • হজম শক্তি বাড়াতে সাহায্য করে।
  • চুল পড়া কমায়।
  • রক্তে কোলেস্টরল কমায়।
  • উচ্চ রক্তচাপ কমাতে সাহায্য করে।
  • পেশি শক্তি বাড়ায়।
  • শরীরকে ডি- টক্সীফাই করে।
  • রসুন কোলন ক্যান্সার প্রতিরোধ করে।
  • রসুন প্রাকৃতিক এন্টোবায়েটিক হিসেবে কাজ করে।
  • রসুনে থাকা nutrients আমাদের শরিরের জন্য অনেক উপকারী।
  • রসুন আমাদের স্তন ক্যান্সার থেকে সুরক্ষা প্রদান করে।
  • নিয়মিত রসুন খেলে চোখে ছানি পড়ার সমস্যা থেকে মুক্তি পাবেন।
  • রসুন , আমাদের কোলন ক্যান্সার, প্রোস্টেট ক্যান্সার, ও রেক্টাল ক্যান্সারের হাত থেকে রক্ষা করে।
  • নিয়মিত রসুন খেলে এটি যৌন সক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে।
  • রসুন ঠান্ডা কাশি কমাতে কাজ করে।
  • নিউমনিয়া বা ব্রংকাইটিস রোগ সারাতেও দারুন উপকারি এই রসুন।
  • পরিপাকতন্ত্র ভালো রাখতে সাহায্য করে।

কিভাবে বানানো হয় এই আচার?

আচারে টক ফ্লেভারের জন্য তেঁতুল ব্যাবহার করা হয়। এজন্য প্রথমে তেঁতুল ভিজিয়ে নিয়ে তেতুলের ক্লাথ তৈরী করা হয়।এরপর আস্ত রসুনের খোসা  ছাড়িয়ে নিয়ে এটিকে কড়াই বসিয়ে একে একে , সরিষার তেল, রসুন বাটা,আদা বাটা,পাচফোরন, সরিষা বাটা,শুকনো মরিচ,লবন সহ আরো বেশ কিছু মশলা দিয়ে ভালো ভাবে মাখিয়ে জ্বাল করে নেওয়া হয়।

তারপর রসুন আধা সিদ্ধ হয়ে এলে,  এতে ভেজে রাখা জিরা গুড়া,ধনিয়া গুড়া, চিনি এবং আরো কিছু সিক্রেট উপাদান মিশিয়ে নেওয়া হয় ,যা আচারের টেস্ট কে করে আর দ্বিগুন। ব্যাস এবার আচার গুলোকে ঠান্ডা করে বয়ামে রাখলেই এটি খাওয়ার জন্য একদম রেডি। এক প্লেট খিচুরি অথবা গরম ভাত ,সাথে প্লেটের এক কোনায় রসুনের আচার । তৃপ্তি সহকারে খেতে চাইলে এটাই যথেষ্ট।

সংরক্ষণ পদ্ধতি

সংরক্ষন পদ্ধতি
  • আচার তোলার জন্য ভেজা চামচ ব্যাবহার করা যাবে না।
  • আচারের বয়াম স্যাতসেতে জায়গায় রাখা যাবে নাহ।
  • শুধু মাত্র চামচ দিয়েই আচার তুলবেন। হাত দিয়ে আচার তুলতে আচার নষ্ট হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে।
  • ফিজে রাখবেন অথবা মাঝে মাঝে রোদ্রে দিবেন।
  • কাচের বয়ামে সংরক্ষন করুন।
  • রোদ্রে দেওয়ার সময়ে আচারের ঢাকনা খুলে দিবেন।এতে প্রোডাক্ট বেশি দিন সংরক্ষন করতে পারবেন।
  • প্রতিবার আচার খাওয়ার পর আচারের ঢাকনা টি অবশ্যই ভাল ভাবে লাগিয়ে নিবেন যাতে বাতাস প্রবেশ না করে।

বাজারে এতো আচারের ভিরে বিন্নি ফুডের আচার কেন খাবেন?

  • বাছাইকৃত দেশি রসুন দিয়ে তৈরি।বাজারে রসুনের কোয়া আচার এভেইলেবল থাকলেও গোটা রসুনের আচার কিন্তু পাওয়া মুশকিল। অন্যদিকে স্বাদের কথা ভেবে দেখলেও অণ্য সব আচারের চেয়ে গোটা রসুনের আচার সেরা!।
  • সম্পুর্ন হোমমেইড বা ঘরোয়া পদ্ধতিতে তৈরি করা এবং স্বাস্থ্যসম্মত উপায়ে আচার রোদে শুকানো হয়।
  • রসুন সংগ্রহ থেকে শুরু করে আচার বানিয়ে তা প্যাকেজিং করা অব্দি আমরা কোয়ালিটি মেইন্টেইন করে থাকি , তাই আপনি পাবেন ১০০% কোয়ালিটিফুল প্রডাক্টের নিশ্চয়তা।
  • বিন্নি ফুডের আচার শতভাগ ভেজাল মুক্ত, এই আচারে কোণো রকম কেমিক্যাল প্রিজারভেটিভ বা ভিনেগার ব্যবহার করা হয় নি।

এতক্ষন আমরা জেনে নিলাম রসুন আচারের উপকারিতা  এবং এর সংরক্ষন পদ্ধতি সম্পর্কে। তাহলে আর দেরী কেনো? এক্ষনি অর্ডার করুন এবং উপভোগ করুন মজার স্বাদের রসুনের আচার।

Leave a Reply